আবুল কাসেম
২৬ জানুয়ারী ২০২৪, ৭:৩১ অপরাহ্ন
অনলাইন সংস্করণ

রাজনীতি হোক দেশ ও মানুষের কল্যাণে

মেট্রোরেল কিংবা কর্ণফুলী নদীতে টানেল এমন সব নতুন বিষয়ের অভিজ্ঞতা নিচ্ছে বাংলাদেশের জনগণ। স্বাধীনতার পর ৫০ বছরের বেশি সময় পেরিয়ে আসা বাংলাদেশ বিশ্বে এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বর্তমান সরকারের প্রজ্ঞা, দূরদর্শিতা ও ঐকান্তিকতার ফলে উন্নয়নের সুফল ভোগ করছেন সবাই।

এছাড়াও ২০৪১ সালের স্মার্ট বাংলাদেশ এবং ডেলটা প্ল্যান ২১০০ সালের রূপরেখা ঘোষণার কৃতিত্বের দাবিদার বর্তমান সরকার।
স্বাধীনতা পরবর্তী বিভিন্ন সময়ে অনেক রাজনৈতিক সংকটের মুখে পড়েছে আমাদের বাংলাদেশ। নানা ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে আবার তার উত্তরণও ঘটেছে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার কাজটি সময়ের প্রয়োজনে হয়ে ওঠেছে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এবং সেটা বিনির্মাণের কাজ নিরলসভাবে করে চলেছেন তাঁরই কন্যা দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডিজিটাল সুবিধার ফলে বর্তমানে দেশব্যাপী লাখ লাখ তরুণ, ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করে চলেছেন বেশ সফলতার সাথে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসেও ইন্টারনেটের মাধ্যমে আউটসোর্সিং করে তারা কয়েকশ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করছেন। অনলাইন শ্রমশক্তিতে বাংলাদেশের অবস্থান দিন দিন মজবুত হচ্ছে। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বিশ্বের সচেতন মহলে প্রশংসা কুড়িয়েছে।

বাংলাদেশের সৃষ্টিলগ্ন হতে রাজনৈতিক অস্থিরতা চলমান। দেশের সাধারণ মানুষ চায় রাজনীতিটা প্রতিযোগিতামূলক হোক। রাজনীতিতে জ্ঞান, প্রজ্ঞা ও সুচিন্তার সমন্বয় ঘটুক। সব রাজনৈতিক দলের মধ্যে ইতিবাচক প্রতিযোগিতা হলে রাজনীতিটা আরও বেশি সুন্দর ও স্বচ্ছ হয়ে উঠবে। কিন্তু বিভিন্ন সময়ে আমরা লক্ষ্য করি চরম অস্থিরতা। ক্ষমতার মসনদে বসার লোভ-লালসা এবং ক্ষমতার চেয়ার দখলে অশুভ পায়তারা। অথচ এগুলো কারও কাম্য নয়।

রাজনীতিতে বলা হয় ব্যক্তির চেয়ে দল বড়ো, দলের চেয়ে দেশ বড়ো। এই মূলমন্ত্র যদি আমরা অনুসরণ করি, তাহলে দেশ ও জনগণের ক্ষতিসাধন করে রাজনীতি করার কোনো সুযোগ নেই। রাজনীতির নামে মানুষ হত্যা, অগ্নিসন্ত্রাসের মতো ঘটনা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এমন রাজনীতি যেকোনো দলকে জনবিচ্ছিন্ন করবে। রাজনীতিতে যদি ব্যক্তিগত স্বার্থ ও ক্ষমতার লিপ্সা মুখ্য হয়ে দেখা দেয়, তবে বিশৃঙ্খলা ও নৈরাজ্যে নিপতিত হয় দেশ। নিপীড়িত মানুষের আর্তনাদে ভারী হয়ে ওঠে চারপাশের বাতাস। রাজনীতিবিদের সবসময় হতে হবে প্রজ্ঞাবান, ইতিবাচক চিন্তার অধিকারী। দেশের স্বার্থে নিজেকে বিলিয়ে দেয়ার মানসিকতা থাকতে হবে সর্বদা, রাজনীতিতে ত্যাগের বিকল্প নেই।

রাজপথে অস্থিরতা সৃষ্টি করে শিক্ষা, অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ রাষ্ট্রের স্বার্থসংশ্লিষ্ট কার্যক্রমগুলো ক্ষতিগ্রস্থ করার কৌশলে সাধারণ মানুষ বিশ্বাসী নয়। আমরা প্রায়ই যেকোনো বিষয়ে উন্নত রাষ্ট্রগুলোর রাজনৈতিক ব্যবস্থাকে উদাহরণ হিসেবে টেনে আনি। তাদের রাজনীতিবিদদের জনসম্পৃক্ত কাজগুলো দৃষ্টান্ত হিসেবে বিবেচনা করি। তাদের রাজনৈতিক কার্যক্রম কখনোই আমাদের দেশের মতো সাধারণ মানুষকে অবরোধ করে হয় না, সেটাও আমরা উল্লেখ করি। কিন্তু তার কতটুকু প্রতিফলন আমাদের রাজনীতিবিদরা দেখাতে পারেন? উন্নত রাষ্ট্রগুলোতে সরকারের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করার জন্য বিরোধী দলগুলো ছায়া সরকার গঠন করে। সরকারের উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের প্রশংসা করে তারা, সরকার কোনো কাজে ভুল করলে সেটি কিভাবে করা গেলে ভালো হতো তার পথ বাতলে দেয়। অথচ আমাদের দেশে ঠিক এর উল্টোটি ঘটে। সরকার যতই ভালো কাজ করুক না কেন, সেগুলোকে কতটা ছোট করে দেখানো যায় তার প্রতিযোগিতা চলে। এর সঙ্গে গুজব, মিথ্যাচার, অপপ্রচারের মতো নেতিবাচক বিষয়গুলোও বিদ্যমান রয়েছে।
বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশকে এগিয়ে নিতে সরকারের কর্মকাণ্ডের গঠনমূলক সমালোচনা করাই বিরোধীদের দায়িত্ব হওয়া উচিত। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে রাজপথ বন্ধ করে নয়, বরং রাজপথ উম্মুক্ত রেখেই ইতিবাচক চিন্তায় রাজনীতিবিদদের গঠনমূলক রাজনীতি করতে হবে নতুবা দেশের অগ্রযাত্রায় বিঘ্নতা ঘটবে। রাজনীতি হোক দেশ ও মানুষের কল্যাণে।

Facebook Comments Box

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

লেখক ইশতিয়াক রুপু’র স্মৃতিচারনমূলক গদ্যের বই ‘জলজোছনার জীবনপত্র’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ফ্যাশন ও উন্নত প্রযুক্তির সমন্বয়ে পণ্য তৈরিতে জোর হুয়াওয়ের

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন সিরিজের জন্য অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ দল

প্রবাসে দলাদলি, মারামারি, রক্তারক্তি আর কত? এতে বাঙালি কমিউনিটির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করার পরামর্শ বিশ্বব্যাংকের (এমডি) অ্যানা বেজার্ড এর

বিপিএল এর কিছু প্লেয়ার এর যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কোচ হাথুরু

বসে বসে কাজ, ডেকে আনে সর্বনাশ

বড়লেখায় ভাষা শহীদদের প্রতি নিসচা’র শ্রদ্ধা নিবেদন: নানাবিধ কর্মসূচি গ্রহণ

প্রতিদিন শ্যাম্পু করা ও হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার কি চুলের ক্ষতি করে?

রাতে ঘন ঘন প্রস্রাবের কারণ কী?

১০

যেসকল দেশের নাগরিকরা ভিসা ছাড়া উমরাহ পালন করতে পারবেন

১১

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলো আর্জেন্টিনা

১২

হার্ট সতেজ রাখতে প্রয়োজন খাদ্যভ্যাসে ৫টি পরিবর্তন

১৩

মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর উপায়

১৪

টং টং: বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা শিশু

১৫

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি: ২ বাংলাদেশি যুবক নিহত

১৬

রাশিয়ায় কারাবন্দী বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যু

১৭

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড: নতুন চুক্তিতে সাকিব-শান্তদের বেতন

১৮

পাকিস্তানের নির্বাচনে যেভাবে ভূমিকা বদল হল ইমরান খান ও নওয়াজ শরিফের

১৯

মিয়ানমার সংকট: চীন-ভারতের স্বার্থ আর বাংলাদেশের কূটনৈতিক চ্যালেঞ্জ

২০