আবুল কাসেম
৬ জুলাই ২০২৩, ১:৫৩ অপরাহ্ন
অনলাইন সংস্করণ

এমন জন আর আসবেন না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে মোস্তফা আল্লামা

মেয়েরা কখনো ওদের আত্মীয় স্বজনদের বাসায় নয়তো চেনা জানা কারো বাসায় বেড়াতে যায়।এসে বলে বাবা যে বাসায় গিয়েছিলাম উনারা দাদাকে চিনেন এমনকি তোমাকেও। উনারা জানতে চাইলেন দেশে বাড়ি কোথায় ? সুনামগঞ্জ বলে দাদার নাম বলতেই জানালেন সবাইকে চিনেন। শুনি আর ভাবি বয়স ষাটের উপর হলেও এখনো পিতার পরিচয়েই নিজে যেমন চলছি। আগামি প্রজন্মকেও শিকড়ের পরিচয় দিতে গিয়ে বাবার কথাই বলতে হবে।

গতকাল মিশিগান রাজ্যের ডেট্রয়েট শহরে নিরবে চলে গেলেন একজন সর্ব শ্রেষ্ঠ মুক্তিযাদ্ধা মোস্তফা আল্লামা। তিনিও আমাকে চিনেছিলেন বাবার পরিচয়ে।

স্বাধীনতা পূর্ববর্তী সময়ে ধনী ছিলেন। পিতার ছিলো আবাসিক ব্যবসা। মতিঝিলের ব্যস্ত এলাকা ফকিরাপুলে সিলেট বোর্ডিংসহ ছিলো আরো অনেক ব্যবসা। সেসবে মন ছিলো না। বঙ্গবন্ধুর আদর আর স্নেহ বিক্রি করে টাকা বাগানোর ধান্ধায় ছিলেন না। সামরিক ট্রাকের ড্রাইভার হয়ে রিলিফের গুড়া দুধ বিক্রি করে আজ অনেকে দেশের সেরা ধনী।

নিজের বিমান ব্যবহার করে সরকার কে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে বিদেশ চলে যায়। ব্যাঙ্ক পাড়ায় বন্দুক বাজি করে। সবই ওদের দখলে। সাংসদ পদ ব্যবহার করে সব অপরাধ ঢেকে রাখতে এখানে ওখানে ধর্না দেয়। আর এসব রাজনৈতিক সুবিধাবাদীদের জন্য দেশকে আরো বেশি করে ব্যবহার করে দেবার সুবিধা দিয়ে নিজে হয়েছিলেন আমেরিকা প্রবাসী।

দেশে যখন ছিলেন তালিকা ধরে অনেক ভালো ভালো বিষয়ের সূচনা করেছেন। ‘আল্লামা গোল্ড কাপ’ একসময় সারা দেশে আলোড়ন তুলেছিলো।কোন পদ দখলের প্রতিযোগিতায় ছিলেন না।

 

সমাবেশস্থলে বঙ্গবন্ধুর সাথে মোস্তফা আল্লামা

বাটপারি করে পয়সা কামানোর জন্য জেনারেলের মদের টেবিলের সঙ্গী হন নাই। জনগনের মধ্যে ছিলেন। কর্নেল ওসমানী সাহেবের ব্যাক্তিগত সহকারী হয়ে শিখেছিলেন অন্যায়ের প্রতিবাদ করা। কাউকে তোষামোদ করেননি। ভয় ও পেতেন না। মা কিম্বা খালা ডেকে সাংসদ পদ বাগানোর কোন কৌশলে ছিলেন না।

শামীম কিম্বা শাহেদ সহ অধুনা বিশ্ব বাটপার আসকারীর ন্যায় ছবি বিক্রি করে কিছু হাসিলের চেষ্টাতে ছিলেন না। অথচ দেশের মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি বিরাট অবদান ছিলো। তা অন্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে ধমক দিয়ে পদকও আদায় করেন নি। মিলেমিশে ছিলেন মিশিগানের অভিবাসীদের হাসি কান্না আর ভালবাসার প্রতিদিনের গল্পে।

২০১৯ এর গ্রীষ্মে মিশিগান বেড়াতে গিয়ে দেখা হলো চৌকস এক সাংবাদিক ভাইর সঙ্গে। যাকে মিলিয়ে দিয়েছিলেন আমাদের উত্তর আমেরিকা প্রথম আলোর সম্পাদক ইব্রাহীম চৌধুরী।বর্তমানে মিশিগান রাজ্যের ওয়ারেনে বাসকারী সাংবাদিক ইকবাল ফেরদৌস দারুন একজন করিৎকর্মা লোক।

পুরো শহরের সর্বত্র যার ভীষন যোগাযোগ। ডেট্রয়েট শহরে পৌঁছামাত্র একরকম ছিনতাই হয়ে গেলাম ইকবাল ভাইর হাতে। নিয়ে গেলেন শহরের উপকন্ঠে একটি খেলার মাঠে। সীমিত ওভারের জমজমাট ক্রিকেট আয়োজনে উপমহাদেশ ছাড়িয়ে শ্রীলঙ্কা, কেনিয়াসহ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সৌখিন ক্রিকেটাররাও আছেন। তবে নেতৃত্বে বাংলাদেশী অভিবাসী ক্রিকেট পাগল যুবকরা। মাঠের অপর পাশে সবুজে ঢাকা প্রাকৃতিক পরিবেশে মিশিগান ঢাকা বিভাগ কল্যাণ সমিতির বাৎসরিক বনভোজন।

পরিচয় পর্ব শেষে সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বক্তব্য শেষ হতে না হতেই ছোট খাট আকারের সাদা ধবধবে মুখ ভর্তি দাড়ি এবং মাথায় সুন্দর টুপি পরিহিত এক ভদ্রলোক এসে জানতে চাইলেন। ভাইজান আপনার দৌলতখানা (বাড়ি) কোথায়? একটু মজা করে জানতে চাইলাম। আপনি বলেন দেখি, দেশে কোন জেলায় আমার বাড়ি? উত্তরে বললেন, শুদ্ধ ভাষায় দখল থাকলেও বাড়ি সিলেট বুঝা যায় তবে আন্দাজ করছি সুনামগঞ্জ কিম্বা হবিগঞ্জ হবে। হেসে বললাম, সুনামগঞ্জ ! তারপর এক মিনিট যেতে না যেতে আমাকে চমকে দিয়ে একরাশ বিস্ময়ের বেড়াজালে ফেলে বলে উঠলেন, তুমি কি বারী ভাইর ছেলে ? না আবেদীন রাজার ভাই? আমি নির্বাক হয়ে থাকা অবস্থায় বলে চলছেন, সুনামগঞ্জ এরকম লম্বা ও বিশাল দেহী পরিবার খুবই স্বল্প। তা তুমি না জানলেও আমি জানি। তাছাড়া তোমার চেহারায় উজ্জল ফর্সা এবং দীর্ঘদেহী খুব পরিচিত ও বড় ভাই বারী ভাইর অনেক সাদৃশ্য আছে। আবেগে আর ভালবাসায় হতবাক হয়ে জড়িয়ে ধরলাম সেই মহান মানুষটিকে।

যিনি চলে গেলেন তার অর্জিত সব অহঙ্কার ও জনতার ভালবাসা নিয়ে কোন রূপ রাজনৈতিক সওদা না করেই। যা আজকাল করতে আমরা সদা ব্যস্ত হয়ে ঘুর ঘুর করছি ক্ষমতার আশে পাশে।

Facebook Comments Box

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

লেখক ইশতিয়াক রুপু’র স্মৃতিচারনমূলক গদ্যের বই ‘জলজোছনার জীবনপত্র’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ফ্যাশন ও উন্নত প্রযুক্তির সমন্বয়ে পণ্য তৈরিতে জোর হুয়াওয়ের

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন সিরিজের জন্য অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ দল

প্রবাসে দলাদলি, মারামারি, রক্তারক্তি আর কত? এতে বাঙালি কমিউনিটির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করার পরামর্শ বিশ্বব্যাংকের (এমডি) অ্যানা বেজার্ড এর

বিপিএল এর কিছু প্লেয়ার এর যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কোচ হাথুরু

বসে বসে কাজ, ডেকে আনে সর্বনাশ

বড়লেখায় ভাষা শহীদদের প্রতি নিসচা’র শ্রদ্ধা নিবেদন: নানাবিধ কর্মসূচি গ্রহণ

প্রতিদিন শ্যাম্পু করা ও হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার কি চুলের ক্ষতি করে?

রাতে ঘন ঘন প্রস্রাবের কারণ কী?

১০

যেসকল দেশের নাগরিকরা ভিসা ছাড়া উমরাহ পালন করতে পারবেন

১১

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলো আর্জেন্টিনা

১২

হার্ট সতেজ রাখতে প্রয়োজন খাদ্যভ্যাসে ৫টি পরিবর্তন

১৩

মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর উপায়

১৪

টং টং: বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা শিশু

১৫

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবি: ২ বাংলাদেশি যুবক নিহত

১৬

রাশিয়ায় কারাবন্দী বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যু

১৭

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড: নতুন চুক্তিতে সাকিব-শান্তদের বেতন

১৮

পাকিস্তানের নির্বাচনে যেভাবে ভূমিকা বদল হল ইমরান খান ও নওয়াজ শরিফের

১৯

মিয়ানমার সংকট: চীন-ভারতের স্বার্থ আর বাংলাদেশের কূটনৈতিক চ্যালেঞ্জ

২০