গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড-এ ‘পিপার অ্যাক্স’

ঝালে সব মরিচকে টেক্কা দিল নতুন উদ্ভাবিত ‘পিপার অ্যাক্স’ নামের ছোট্ট একটি মরিচ। মঙ্গলবার গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস ঘোষণা করেছে, পূর্বের ক্যারোলাইনা রিপার নামের মরিচকে টপকে এক নম্বর স্থান দখল করেছে পিপার অ্যাক্স।

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলাইনায় পাকারবাট মরিচ কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা অ্যাড কুরি নতুন এই মরিচ আবিষ্কার করেছেন। এর আগের সবচেয়ে ঝাল ক্যারোলাইনা রিপার মরিচটিও তিনিই চাষ করেছিলেন। কুরি জানিয়েছেন, পিপার এক্স ক্যারোলাইনা রিপারের একটি ক্রস ব্রিড। দাবি করেছেন, তাঁর এক বন্ধু এটি মিশিগান থেকে পাঠিয়েছিলেন। এই মরিচকে ‘নিষ্ঠুরভাবে ঝাল’ হিসেবে মন্তব্য করেন কুরি।
মরিচটি পরখ করে দেখার অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে কুরি বলেন, ‘আমি সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে ঝাল অনুভব করছিলাম। বৃষ্টিতে প্রায় এক ঘণ্টার জন্য আমাকে একটি মার্বেল মেঝেতে শুইয়ে রাখা হয়েছিল। ব্যথায় কাতরাচ্ছিলাম।’

স্কাই নিউজের এক প্রতিবেদনে এই মরিচ সম্পর্কে বলা হয়েছে, এটি এতই ঝাল যে আজ পর্যন্ত মাত্র পাঁচজন মানুষ একটি আস্ত পিপার অ্যাক্স খেতে পেরেছেন। দক্ষিণ ক্যারোলাইনার উইনথ্রপ ইউনিভার্সিটির পরীক্ষায় দেখা গেছে, নতুন এই মরিচের স্কোভিল হিট ইউনিটের হার গড়ে ২ দশমিক ৬৯ মিলিয়ন। এর আগে শীর্ষ স্থানে থাকা ক্যারোলাইনা রিপার মরিচটির স্কোভিল হিট ইউনিটের হার ছিল গড়ে ১.৬৪ মিলিয়ন। স্কোভিল হিট ইউনিট দিয়ে মূলত ঝালের মাত্রা নির্দেশ করা হয়।


Posted

in

by

Tags: