গ্যোটে-ইন্সটিটিউটের দক্ষিণ এশীয় ভাষায় জার্মান নাটক

ছবি : সংগৃহীত

অনেক জার্মান নাটক তাদের ইংরেজি অনুবাদের মাধ্যমে আমাদের কাছে পরিচিত। তবে দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের দেশগুলোতে স্থানীয় ভাষায় সমসাময়িক জার্মান নাটকের অনুবাদ স্থানীয় নাট্যদল এবং দর্শকদের মাঝে আরো বেশি গ্রহণযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তা পাবে – একথা নিঃসন্দেহে অনুমেয়। আর এই ভাবনা থেকেই গ্যোটে-ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ “দক্ষিণ এশীয় ভাষায় সমসাময়িক জার্মান নাটক” শীর্ষক প্রকল্পের জন্ম দিয়েছে।

এই প্রকল্পের প্রাথমিক কাজ ২০২০ সালে শুরু হয় অনুবাদের জন্য সমসাময়িক জার্মান নাটক নির্বাচনের পাশাপাশি স্থানীয় যোগ্য অনুবাদকদের শনাক্তকরনের মাধ্যমে। অতঃপর ২৫ জন অনুবাদক সর্বমোট ২০টি জার্মান নাটককের ৪৬টি অনুবাদ করছেন দক্ষিণ এশিয়ার যে ছয়টি ভাষায়, তা হলো; বাংলা, উর্দু, মারাঠি, তামিল, হিন্দি এবং সিংহলি। বাংলা ভাষায় অনূদিত হয় দুইটি নাটক।

“দক্ষিণ এশীয় ভাষায় সমসাময়িক জার্মান নাটক” প্রকল্পের অংশ হিসেবে, গ্যোটে-ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ নিম্নলিখিত বিবরণ অনুযায়ী দুইটি জার্মান নাটক মঞ্চস্থ করতে যাচ্ছে ১২ এবং ১৩ জুন উভয় দিন সন্ধ্যা ৬:৩০ ঘটিকা থেকে।

নাটক – “দেড় সিনসোলড্যাট উন্ড দিই পেপিয়ারতান্জারিন” (টিনের সেপাই ও কাগজের নর্তকী)

রচনা – রোল্যান্ড শিমেলফেনিগ

বাংলায় অনুবাদ করেছেন; রমিত রায়

মঞ্চে মনোরম পাঠঃ প্রাচ্যনাট

কখন: রবিবার, (১২ জুন), সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিটে।

কোথায়: বাংলাদেশ মহিলা সমিতি – ডাঃ নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তন, ঢাকা ।

নাটক – “ইস লিবে ডিশ” (ভালোবাসি)

রচনা – ক্রিস্টো জাগর

বাংলায় অনুবাদ করেছেন – পার্থপ্রতিম চট্টোপাধ্যায়

মঞ্চে মনোরম পাঠঃ বহ্নিশিখা

কখন: সোমবার, (১৩ জুন), সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিটে।

কোথায়: বাংলাদেশ মহিলা সমিতি – ডাঃ নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তন, ঢাকা। বিজ্ঞপ্তি।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.