অভিবাসন
চলমান

পাচারের শিকার ফারাহর গল্প

অভিবাসীদের অনুপ্রেরণা

তার নাম মো ফারাহ। তিনি একজন চারবারের অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন এবং দৌড়বিদ হিসেবে সফল ক্যারিয়ার গড়েছেন।

তবে তিনি এখন অবশ্য অন্য কারণে একজন আইকন হয়েছেন।

কারনটি হলো তিনি মানব পাচারের শিকার হয়েও সবচেয়ে বিশিষ্ট ব্যক্তি হয়েছেন।

তাকে শৈশবে পাচারকারীরা জিবুতি থেকে অবৈধভাবে ব্রিটেনে নিয়ে আসে এবং গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতে বাধ্য করে। এসময় তার বয়স ছিল মাত্র নয় বছর।

কিন্তু পরবর্তীতে ফারাহ নিজের চেষ্টায় “অবৈধ” অভিবাসী পরিচয় মুছে ফেলা সাফল্যের সর্বোচ্চ শিখরে পৌছান।

এখন ফারাহের গল্প অন্যান্য পাচারের শিকার হওয়াদের অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে।

তার জীবনের উপর ‘দ্য রিয়েল মো ফারাহ’ নামক তথ্যচিত্র তৈরি হয়েছে। ছবি সংগৃহীত।

৩৯ বছর বয়সী ফারাহ বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)-কে বলেন, তিনি মনব পাচার এবং আধুনিক দাসত্ব সম্পর্কে জনসাধারণের ধারণাকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য সবাইকে তার অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানানোর সিদ্ধান্ত নেন।

আজ তার গল্প বিশ্বব্যাপী অনুরণিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে সংঘাত, জলবায়ু পরিবর্তন এবং অর্থনৈতিক ক্রাইসিস ইত্যাদি সমস্যা হাজার হাজার লোককে স্থানচ্যুত করে অভিবাসী হিসেবে ব্রিটেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশসমূহে এবং যুক্তরাষ্ট্রে পাচারকারী চক্রের হাতে ঠেলে দেয়।

পাচারকারীদের পাল্লায় পড়া এসব লোকেরা ভালো চাকরি এবং জীবনের নিরাপত্তা পাওয়ার আশা করে হাজার হাজার ডলার প্রদান করে। তবে তাদের বেশিরভাগের গল্প অনেক বেদনার হয়ে থাকে।

Back to top button