তরুণদের অনলাইনে নিরাপদ থাকতে উদ্বুদ্ধ করছে টিকটক ও জাগো ফাউন্ডেশন

টিকটক এবং জাগো ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের তরুণদের মধ্যে অনলাইন নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইতিমধ্যে সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, ময়মনসিংহ, শেরপুর, নেত্রকোণা, জামালপুর, বাগেরহাট এবং নড়াইল জেলায় সফলভাবে “অনলাইন সেফটি আড্ডা’ নামে কর্মশালা আয়োজন করেছে।

এসব কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা অনলাইন ডোমেনে, বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মসমুহ ব্যবহারের বিভিন্ন নিরাপত্তাজনিত দক্ষতা এবং আচরণগত শিষ্টাচার সম্পর্কে জ্ঞান আহরণ করে। কর্মশালার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ ছিল টিকটক-এর সেফটি টুলস গুলোর সাথে অংশগ্রহণকারীদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া, যা প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য তৈরি করা হয়েছে। এছাড়াও অনলাইন কন্টেন্ট তৈরির জন্য বিভিন্ন টিপস এবং কৌশল সম্পর্কেও অংশগ্রহণকারীরা জ্ঞান অর্জন করেছে।

অনলাইন সেফটি সামিট-সিলেট নামে সিলেটে একটি বিভাগীয় মিটআপ পরিচালনা করা হয়, যেখানে উপস্থিত ছিলেন সিলেট উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি রাবেয়া আক্তার রিয়া, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মোহাম্মদ মিজানুর রহমানসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। উক্ত অনুষ্ঠানে তাঁরা ইন্টারনেট ব্যবহারের গুরুত্ব নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি ইন্টারনেট ব্যবহারে সতর্কতার গুরুত্বের উপরেও আলোকপাত করেন। জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার সাকিব বিন রশিদের উপস্থিতি উক্ত আলোচনা সভাকে আরো সমৃদ্ধ করে।

ক্যাম্পেইনটির অংশ হিসাবে, জাগো ফাউন্ডেশনের সোশ্যাল মিডিয়া পেইজগুলো থেকে একটি এসবিসিসি (সোশ্যাল এন্ড বিহেভিয়ার চেঞ্জ কমিউনিকেশন) ভিডিও কন্টেন্ট প্রকাশিত হয়েছিল। এই কন্টেন্টটি অনলাইন পরিবেশে নিরাপদ এবং দায়িত্বশীল আচরণ চর্চার তাৎপর্য এবং চলমান এই ক্যাম্পেইন সম্পর্কে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জোর দিয়েছে।জনসচেতনতা তৈরির অংশ হিসেবে ক্যাম্পেইনটিতে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সারদের মাধ্যমে প্রচারণা চালানো হয়। ইনফ্লুয়েন্সাররা, তাদের টিকটক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে, নিরাপদে এবং দায়িত্বের সাথে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের তাৎপর্য তুলে ধরার জন্য কন্টেন্ট তৈরি এবং শেয়ার করছে।

ক্যাম্পেইনটির অগ্রগতির মাধ্যমে, টিকটক এবং জাগো ফাউন্ডেশন একটি নিরাপদ ডিজিটাল পরিবেশ গড়ে তোলা এবং দায়িত্বশীল অনলাইন অনুশীলনের জন্য যুবকদের ক্ষমতায়নের জন্য নিজেদের প্রত্যয় ব্যক্ত করছে। এই প্রচারাভিযানটি ২০২৪ সালের এপ্রিল পর্যন্ত চলবে, যার অংশ হিসেবে খুলনার সমস্ত জেলায় “অনলাইন সেফটি আড্ডা’ কর্মশালা সম্প্রসারিত হবে এবং ময়মনসিংহ ও খুলনা বিভাগে আরো দুটি বিভাগীয় মিট-আপ আয়োজিত হবে।

সারা দেশে চলমান “সাবধানে অনলাইন-এ” ক্যাম্পেইনটি অনলাইন নিরাপত্তায় উল্লেখযোগ্য সাফল্য এবং অগ্রগতি অর্জন করেছে। এর মাধ্যমে আমাদের তরুণরা অনলাইন দুনিয়ায় নিজেদের নিরাপদ রাখতে পারছে।

বাংলা সংবাদের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন