বিনোদন
চলমান

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকায় শুরু হলো ‘ছন্দময় বিমূর্ততা’ শীর্ষক একক চিত্র প্রদর্শনী

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার লা গ্যালারিতে শুরু হলো শিল্পী লিয়াকত আলীর ‘ছন্দময় বিমূর্ততা’ শীর্ষক একক চিত্র প্রদর্শনী।

প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করা হয় শুক্রবার (৫ আগষ্ট)।

বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক মোস্তাফিজুল হক, চারুকলা অনুষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, এ এস এম ফিরোজ এমপি, বাংলাদেশ সংসদের সাবেক চিফ হুইপ এবং মোঃ সুলতান মাহমুদ, প্রসিকিউটর, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১, বাংলাদেশ।

শিল্পী লিয়কত আলীর কাজ ইতিপূর্বে জাপান, কানাডা, যুক্তরাজ্য, চীন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বাংলাদেশে একক ও দলীয় প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হয়েছে। লিয়াকত চায়না ন্যাশনাল ফাইন আর্টস একাডেমি, হ্যাংজু থেকে অঙ্কন ও চিত্রকলায় তার বিএফএ সম্পন্ন করেন। শিল্পী লিয়াকত আলীর কাজের আকাঙ্খা তার বিমূর্ত উপস্থাপনায় সম্প্রীতির সন্ধান করেছেন। তার অষ্টম একক শিল্প প্রদর্শনী “রিদমিক অ্যাবস্ট্রাকশন” বা ছন্দময় বিমূর্ততা একটি নতুন লেন্সের মাধ্যমে আমাদের সামনে এসেছে।

শিল্পীর বিবৃতি: “আমার বিমূর্তের মধ্যে সামঞ্জস্য খুঁজে পেতে ইচ্ছা কখনও কখনও কল্পনার মত অনুভূত হয়। একটি বিমূর্ততার ফলাফল সম্ভবত মানুষের সুখ এক ধরনের বাদ্যযন্ত্রের অলংকরণ যা সঙ্গীত এবং আনন্দে ভরা হৃদয়। আমি যখন আমার চিত্রকর্মে হৃদয় ও সংগীত এঁকেছিলাম, তখন এটি ছিল আমার চিত্রকলার জীবনের শুরু। আপনি একটি পেইন্টিং এর মধ্যে প্রতিমূর্তী নির্মাণের স্বাদ খুঁজে পেতে পারেন। পেইন্টিংয়ের মেজাজ ছবিটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলে এবং সঙ্গীত চিত্রগুলিতে একটি নতুন মেজাজ দিতে পারে যা সমসাময়িক প্ল্যাটফর্মে বিমূর্ত চিত্রগুলির জন্য একটি নতুন শৈলী হতে পারে, যা ছন্দময় বিমূর্ততার মতো দেখায়।”

প্রদর্শনীটি চলবে ১৩ আগষ্ট পর্যন্ত।

সোমবার থেকে শনিবার বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি খোলা থাকবে। রোববার সাপ্তাহিক বন্ধ। প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত। বিজ্ঞপ্তি।

 

 

 

Back to top button