লাইফ স্টাইল
চলমান

বৈদ্যুতিক গাড়ির রহস্য উদঘাটন

আপনি যদি পরিবেশ বন্ধুভাবাপন্ন হন তাহলে হয়তো শুরুতেই বলবেন বৈদ্যুতিক গাড়িতে জ্বালানি তেলের দরকার নেই, চার্জ দিলেই হলো এবং বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট মোকাবেলার এটি একটি বিকল্প মাধ্যম। হ্যা, আপনি ঠিকই ধরেছেন। 

তবে, এগুলো ছাড়াও বৈদ্যুতিক গাড়ির আরো কিছু বৈশিষ্ট্য বা রহস্য রয়েছে। 

চলুন বৈদ্যুতিক গাড়ির সেইসব রহস্য উদঘাটন করা যাক।

জনপ্রিয়তা

বৈদ্যুতিক গাড়ির জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কারন আধুনিক পরিবেশ সচেতন মানুষ টেকসই স্বয়ংচালিত প্রযুক্তি গ্রহণ করছে।

একটি সমিক্ষায় দেখা যায় অক্টোবর ২০২০ থেকে অক্টোবর ২০২১ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে হাইব্রিড ( সাধারণ+ বৈদ্যুতিক) এবং বৈদ্যুতিক গাড়ির বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৩৭.২ শতাংশ। 

জ্বালানী সাশ্রয়ী

হাইব্রিড বা সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক গাড়ি উল্লেখযোগ্যভাবে জ্বালানী সাশ্রয়ী।

কার্বন নির্গমন হ্রাস

গনমাধ্যমের দেওয়া তথ্যে জানা যায় ২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রে যানবাহন থেকে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে কার্বন নিঃসরণ করেছে। বৈদ্যুতিক গাড়ি যেহেতু তুলনামূলকভাবে কম কার্বন নির্গমন করে। ফলে পৃথিবীকে রক্ষা করতে এই গাড়ির ব্যবহার বৃদ্ধি করা জরুরি।

মেইনটেইনান্স ও মেরামত খরচ কম

গ্যাস চালিত ইঞ্জিনের একাধিক যন্ত্রাংশ সময়ের সাথে সাথে নষ্ট হতে পারে। কিন্তু বৈদ্যুতিক গাড়িতে কম  যন্ত্রাংশ অংশ থাকে এবং তা অনেক দিন পর পর ঠিক করার প্রয়োজন হয়। অন্যদিকে সাধারণ গাড়ির মত বৈদ্যুতিক গাড়িতে তেল পরিবর্তন, নতুন স্পার্ক প্লাগ বা জ্বালানী ফিল্টার প্রতিস্থাপনের জন্য মেইনটেইনান্স প্রয়োজন হয় না।  

এছাড়াও, সাধারণ গাড়ির তুলনায় বৈদ্যুতিক গাড়িতে ব্রেক প্যাডেল দ্বিগুণ দীর্ঘস্থায়ী হয়।

ট্যাক্স ক্রেডিট উপার্জন

ক্রেতারা একটি সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক বা প্লাগ-ইন হাইব্রিড গাড়ি কেনার জন্য ৭,৫০০ ডলার পর্যন্ত ফেডারেল ট্যাক্স ক্রেডিট পেতে পারেন।  ক্রেডিট পরিমাণ আপনার কেনা গাড়ির ব্যাটারির ক্ষমতার সাথে পরিবর্তিত হয়।  বৈদ্যুতিক গাড়ির ট্যাক্স ক্রেডিট কিছু নির্দিষ্ট রাজ্য এবং আপনার স্থানীয় পর্যায়েও পাওয়া যেতে পারে।

টেসলার এস মডেলের একটি বৈদ্যুতিক গাড়ি। ছবি: উইকিপিডিয়া

চমৎকার পারফরম্যান্স  

যেহেতু বৈদ্যুতিক গাড়ির ওজন প্রচলিত সাধারণ গাড়ির তুলনায় কম, ফলে এ গাড়িতে দ্রুত গতি বাড়ানো যায়। 

কনজিউমার রিপোর্ট থেকে জানা যায়, সাধারণ গাড়ির তুলনায় বৈদ্যুতিক গাড়ি ভালভাবে পরিচালনা করা যায়। এই ধরনের গাড়ি পারফরম্যান্সের পাশাপাশি ড্রাইভ করার মাধ্যমে এক চমৎকার অভিজ্ঞতা দিয়ে থাকে।

এইসব সুবিধা পাওয়ার লক্ষ্যে আজই আপনি একটি টেস্ট ড্রাইভের জন্য একটি বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে নিতে পারেন এবং  আপনার গ্যাস চালিত গাড়ির সাথে বিবেচনা করতে পারেন৷

উল্লেখ্য, বর্তমানে টেসলা, ফোর্ড, ফ্যারাডে ফিউচার, ফিসকার, চার্জপয়েন্ট এবং লুসিড এয়ারসহ আরো অনেক কোম্পানি বৈদ্যুতিক গাড়ি প্রযুক্তির সাথে জড়িত।

Back to top button