প্রচ্ছদ

সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে কমিউনিটিকে বিনোদন দিয়ে যেতে চান টিপু রহমান

২৯ আগস্ট ২০২১, ০২:৪৮

ইকবাল ফেরদৌস, মিশিগান

দুই যুগ ধরে আমেরিকাতে বসবাস করছেন টিপু রহমান। তিনি এখানে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত হয়ে কমিউনিটিকে আনন্দ-উদ্দীপনা দিয়ে চলেছেন। সম্প্রতি তিনি বাংলা সংবাদের সম্পাদক ও প্রকাশক ইকবাল ফেরদৌসের সাথে এক সাক্ষাৎকারে তার এই দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানিয়েছেন।

আপনি কবে আমেরিকায় এসেছেন? এবং আমেরিকায় কোথায় থাকেন?

টিপু রহমান: আমি আমেরিকাতে ১৯৯৭ সালে এসেছি। এর আগে আমি সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই শহরে ছিলাম । প্রথমে আমি নিউজার্সিতে বসবাস করি। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করার পর ২০১৯ সালে আমি মিশিগানে চলে আসি এবং তখন থেকেই আমি এখানে বসবাস করছি।

বর্তমানে আপনি কোথায় কাজ করছেন? এবং মিশিগানে বসবাস করতে আপনার কেমন লাগছে?

টিপু রহমান: আমি বর্তমানে সেক্রেটারি অফ স্টেটে সিকিউরিটিতে কাজ করছি। মিশিগানে বাংলাদেশী কমিউনিটি বেশি থাকায় এখানে বিভিন্ন রকম সামাজিক সংগঠন আছে। যেগুলোর সাথে আমি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত এবং এদের সাথে আমার সময় গুলো অনেক ভালোই কাটছে। এখানে বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র এবং দক্ষিণ সুরমা সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সাথে আমি আছি । মিশিগানে বিভিন্ন জায়গায় যাই এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যাই। তার মাধ্যমে আমার সাথে এখানে বসবাসরত সবার সাথে একটা সম্পর্ক আছে।


আপনি খুব ব্যস্ত সময় পার করছেন উপস্থাপনা নিয়ে। আপনার উপস্থাপনা ক্যারিয়ার সম্পর্কে একটু বলবেন। আপনার উপস্থাপনা ক্যারিয়ার কবে থেকে শুরু হল?

টিপু রহমান:  আমার উপস্থাপনা ক্যারিয়ার শুরু করি নিউজার্সীর পেটারসনে থেকে। ওখানে বিভিন্ন সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক মেলা হয়। পেটারসনে অনেক অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছি । সেই অভিজ্ঞতা থেকে মিশিগানের বসবাসরতদের জন্য কিছু করার আগ্রহ থেকেই আমি এখানেও উপস্থাপনা শুরু করি এবং প্রথম থেকে আমি সকলের সহযোগিতা পেয়েছি।

আপনি সংগঠক হিসেবে বেশ দক্ষতার পরিচয় রেখেছেন । আপনি নিউজার্সিতে থাকাকালীন সময়ে অনেক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন এবং মিশিগানে আয়োজন করছেন এ সম্পর্কে আমাদের কিছু বলুন?

টিপু রহমান:  সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সাথে থাকতে আমার ভালো লাগে।  আমি সঙ্গীত  ভালোবাসি। আমি মানুষকে ভালোবাসি। এখানে বসবাসরত সকল বাংলাদেশীদের জন্য আমি কাজ করছি। আমি সকলকে একটু আনন্দ ও উৎসাহ দেয়ার জন্য অনুষ্ঠানগুলোর আয়োজন করি।

এ পর্যন্ত কত অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন?  উল্লেখযোগ্য কয়েকটি সম্পর্কে বলুন?

টিপু রহমান:  আমি যদি আমার শুরু প্যাটারসন থেকে বলি তাহলে আমি বলব যে বন্ধুদের সাথে মিলে অনেক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। তখন আমি দুই থেকে তিনটি মেলা করতাম।  মোট সংখ্যা প্রায় দুই থেকে তিনশ হবে। মিশিগানে এ পর্যন্ত আমি চারটা প্রোগ্রাম করেছি। চলমান করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে আমরা গত বছর বেশি প্রোগ্রাম করতে পারিনি। আমরা ইতিমধ্যে পরিকল্পনা নিয়েছি বড় একটি প্রোগ্রাম করার জন্য। আশা করি আমরা অতি শীঘ্রই আপনাদের জানাতে পারবো।

আপনার পরিবার সম্পর্কে বলুন?

টিপু রহমান: পরিবারে আমার স্ত্রী সহ দুইটি মেয়ে ও একটি ছেলে আছে। আমি আমার পরিবার নিয়ে  মিশিগানের স্টারলিং হাইটসে এ বসবাস করি। আমার ওয়াইফের নাম সেলিনা বেগম। আমার বড় মেয়ের নাম আনিকা রহমান, আমার ছেলের নাম আবিয়ান​ রহমান এবং আমার মেয়ের নাম আরিয়ানা রহমান। তাছাড়া আমার অনেক আত্মীয় স্বজন এই মিশিগানে বসবাস করে।

যতদূর জানি আপনি গানও করেন। গান গান নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি? আপনি কি কোনো অ্যালবাম বের করার পরিকল্পনা করছেন?

টিপু রহমান: হ্যাঁ, গান আমার অন্যতম ভালো লাগার জায়গা। এখনো পর্যন্ত আমি অ্যালবাম বের করার জন্য কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি । তবে অ্যালবাম বের করার জন্য আমার কাছে অনেক অফার  আছে। এখানে অনেক স্বনামধন্য শিল্পী আছেন তারা আমাকে এই অফার দিয়েছেন ।

আপনি বাংলা সংবাদের পাঠক এবং মিশিগানবাসীদের জন্য কিছু বলুন।

টিপু রহমান: আমার সাক্ষাৎকার নেওয়ার জন্য বাংলা সংবাদকে ধন্যবাদ জানাই। আমি বাংলা সংবাদের পাঠক, মিশিগান বাসি এবং আমার দর্শকদের উদ্দেশ্যে শুধু একটি কথাই বলবো আপনারা আমাকে যেভাবে ভালোবাসা এবং সহযোগিতা দিয়ে এ পর্যন্ত এনেছেন এবং আপনাদের বিনোদন দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন, আশাকরি অদূর ভবিষ্যতে আপনারা আমাকে এভাবে উৎসাহ দিয়ে যাবেন। আপনারা গানকে  ভালোবাসবেন। কারণ  গানের মাধ্যমে আপনারা মানসিক প্রশান্তি পাবেন।
সবাইকে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

আমাদের মোবাইল এপ্পসটি ডাউনলোড করুন