প্রচ্ছদ

ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে সিএসই ফেস্ট অনুষ্ঠিত

২২ মার্চ ২০২২, ১০:০২

বাংলা সংবাদ ডেস্ক

বাংলাদেশে প্রতি বছর কম্পিউটার সায়েন্স থেকে ১০ হাজার ৩৪২ জন গ্র্যাজুয়েট বের হয়। তাদের মধ্যে তোমরা কোথায়? তোমাদের কি হবে? এখন থেকে সেটা নিয়ে ভাবতে হবে। তুমি যেন হারিয়ে না যাও। আর সেজন্য তোমাকে এই বিষয়ের সব কিছু আয়ত্ত করতে হবে। যাতে যেকোনো প্রশ্নের উত্তরের বেলায় তুমি ‘এটা কোনো ব্যাপার না’- এই পর্যায়ে যেতে পারো। ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত সিএসই ফেস্টে দেশের বিশিষ্ট তথ্যপ্রযুক্তিবিদ ও প্রথম আলোর যুব কর্মসূচির প্রধান মুনীর হাসান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেছেন।

সাভারের আশুলিয়ায় ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে ২০ মার্চ রোববার দিনব্যাপী সিএসই ফেস্ট ২০২২ এ প্রধান অতিথি ছিলেন মুনীর হাসান। কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ আয়োজিত চার ধাপে বিভক্ত ফেস্টের প্রথমে ছিল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। দ্বিতীয় পর্ব সাজানো হয় বিভিন্ন ইভেন্ট নিয়ে- প্রোগ্রামিং কনটেস্ট, গেমিং কনটেস্ট, টাইপিং কনটেস্ট ও ইনডোর গেমস। তৃতীয় পর্বে পেশাদার অ্যাপ ডেভেলপার হওয়ার উপায় নিয়ে কর্মশালা পরিচালনা করেন সকার মবিলিটি মালয়েশিয়ার মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপার সাদ বিন বাশার। চতুর্থ পর্বে ছিল পুরস্কার বিতরণ।

বেলা ১১টায় ক্যাম্পাস চত্ত¡রে ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে ফেস্ট উদ্বোধন করেন মুনীর হাসান। এ সময় ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্বাস আলী খান, আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আনোয়ার জাহিদ, ফ্যাকাল্টি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির পিন অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমানসহ বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারপারসন, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে সেমিনার কক্ষে এক সেমিনারে ‘করোনা-পরবর্তী যুগে সিএসইতে ক্যারিয়ার’ বিষয়ে বক্তব্য দেন মুনীর হাসান। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আগামী তিন বছরে সারা পৃথিবীতে ছয় মিলিয়ন সিকিউরিটি এক্সপার্ট লাগবে। নিজেকে প্রকাশ করার বা কাজে লাগানোর এটি একটি বড় জায়গা। ২০২৫ সালের মধ্যে পৃথিবীতে কমপক্ষে ১০ মিলিয়ন প্রোগ্রামারের পোস্ট খালি হবে। যেগুলো পূরণ হবে তোমাদের দিয়েই’।

সিএসই ফেস্টের উদ্বোধনী পর্বে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্বাস আলী খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ফ্যাকাল্টি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির ডিন অধ্যাপক ড. মাহফুজুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন রেজিস্ট্রার ড. আবুল বাশার খান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারপারসন মুহাম্মদ মাহফুজ হাসান। বিজ্ঞপ্তি।

শেয়ার করুন

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

আমাদের মোবাইল এপ্পসটি ডাউনলোড করুন