প্রচ্ছদ

সংগঠন মিশিগানে, ত্রাণ বিতরণ বাংলাদেশে

১৯ মে ২০২০, ২০:৫৮

তোফায়েল রেজা সোহেল, ওয়ারেন, মিশিগান

বৈশ্বিক মহামারি করোনার আছড়ে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ায় অনেক কষ্টে দিন কাটছে খেটে খাওয়া মানুষের। বিপাকে পড়েছেন নিম্ন ও মধ্যবিত্ত লোকেরা। যারা কখনো কারও কাছে হাত পাততে অভ্যস্ত নন, করোনা পরিস্থিতির কারণে তারাও এখন নিরুপায় হয়ে সাহায্যের আশায় বসে থাকেন। নিজ জন্মভূমির সংকটে পড়া সেই সব মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে হাত বাড়িয়ে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান প্রবাসী সংগঠনগুলো।

এই দুর্দিনে দেশের বাড়ির আপনজনেরাসহ দিনমজুর মানুষেরা কষ্টে আছেন ভেবে হাত গুটিয়ে বসে নেই বিত্তবান দানশীল প্রবাসীরা। তারাও শেকড়ের টানে সাড়ে ১২ হাজার মাইল দূর থেকে ত্রাণ সহায়তা পাঠিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত রাখছেন।

হেমট্রামিক সিটির মানি এক্সচেঞ্জ এজেন্ট মাহফুজুর রহমান শাহীন জানিয়েছেন, নিজেরা কর্মহীন থাকলেও দেশের মানুষের কষ্টের কথা চিন্তা করে টাকা পাঠাচ্ছেন এখানকার প্রবাসীরা। বিশেষ করে রমজান মাস শুরু হওয়ার পর থেকেই প্রয়োজনের তুলনায় স্বজন সহ অসহায় মানুষের জন্য টাকা বেশিই পাঠাচ্ছেন। এখানকার বিভিন্ন সংগঠনও ত্রাণ বিতরণে মোটা অংকের টাকা পাঠাচ্ছে।

কমিউনিটির নেতারা বলেছেন, রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক মিলিয়ে মিশিগান রাজ্যে ৫০ টির ওপরে সংগঠন রয়েছে। বেশির ভাগ সংগঠনই জন্মমাটির সাময়িক অসুবিধাগ্রস্ত মানুষের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা অব্যাহত রেখেছে। স্বজন ও বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে তালিকা করিয়ে এ পর্যন্ত লাখ লাখ টাকার ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। সংগঠনের ব্যানারে ও ব্যক্তি উদ্যােগে ত্রাণ বিলি বন্টনে উপস্থিত থাকছেন জন্মভূমির জনপ্রতিনিধি সহ প্রশাসন কর্তাব্যক্তগন।

জানা গেছে, কয়েকদিন পূর্বে সুনামগঞ্জের হাওরপাড়ে দিরাই উপজেলা দুই শতাধিক পরিবারে ত্রাণ বিতরণ করেছে যুক্তরাষ্ট্রস্থ দিরাই- শাল্লা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন। সংগঠনের সেক্রেটারি মোহাম্মদ মোতালিব ফেসবুক স্ট্যাসে বলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারির সংকটময় মুহূর্তে জন্মভূমির দরিদ্র মানুষেরা চরম কষ্টে পড়েছেন। আমরা এই উন্নত দেশ আমেরিকায় বিলাসী জীবন যাপন করলেও মন পড়ে থাকে জন্মভূমির শেকড়ে। এই জন্য জন্মভূমির দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে আমাদের সংগঠনের ক্ষুদ্র প্রয়াস।

সিলেটের গোলাপগঞ্জ হেল্পিং হ্যান্ডস ইউএস গোলাপগঞ্জ উপজেলার দুস্থ এক হাজারের বেশি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে। সংগঠনে সেক্রেটারি শাহীদুর রহমান চৌধুরী জাবেদ ফেসবুক পোস্টে বলেন, গোলাপগঞ্জ হেল্পিং হ্যান্ডস একটি চ্যারিটেবল সংগঠন। নিজ জন্মভূমির অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য জরুরি তহবিল গঠন করা হয়। মানবতার ডাকে এখানকার প্রবাসীদের ব্যাপক সাড়া মিলে। নিজ উপজেলার ক্ষুদার্ত হাজারো মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেয়া হয়েছে।

মিশিগান স্টেটের স্বেচ্ছাসেবক লীগ যুগ্ম আহবায়ক ফয়সল আহমেদ চৌধুরী নিজ জন্মভূমি হবিগঞ্জ সদর উপজেলা হতদরিদ্র মানুষের কষ্ট লাঘবে এক ব্যতিক্রমী উদ্যােগ নেন। তিনি ফেসবুকের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করে ও তার ব্যক্তিগত অর্থ সহায়তায় প্রায় পাঁচ’শ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করান।

নিজ জন্মভূমি হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার একজন অসুস্থ জনপ্রতিনিধিকে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি অনেকটা গোপনে হতদরিদ্র ৮০ পরিবারকে তিন দিনের খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন সুপেন রেজা ওরফে মো. রেজা নামের এক যুবক। এই সংকটে নৈতিক মূল্যবোধ থেকে সাধ্যমতো কর্মহীন গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলে কথার প্রসঙ্গে তিনি জানালেন। একই উপজেলার প্রবাসী ও মিশিগান মহানগর আওয়ামী লীগ সহসভাপতি তুহিন চৌধুরীর সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, প্রতি বছর রমজান মাসে তার নিজ গ্রামের মসজিদে গ্রামবাসীকে নিত্যদিনই ইফতার করাতেন। সেই বরাদ্দের টাকা এবার করোনা বিপর্যস্ত মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন তার এক স্বজনের মাধ্যমে। নিরবে নিভৃতে নিজ গ্রামের অসহায় মানুষকে সহায়তা করেছেন মিশিগান আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজান মিয়া জসিম। নিজের এলাকায় গরীব মানুষের জন্য সহযোগিতা পাঠিয়েছেন মিশিগান স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হামিদ খান। হেলাল উদ্দিন আহমেদও জন্মমাটির অসহায় মানুষের জন্য সহযোগিতার হাত প্রসারিত করেছেন।

এছাড়া এক হাজার পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ সহ ত্রাণ বিতরণ করেছে জকিগঞ্জ সোসাইটি অব মিশিগান সহ ত্রাণ বিতরণ করছে প্রবাসী বিভিন্ন সামাজিক, আঞ্চলিক ও রাজনৈতিক সংগঠনগুলো।



এ সংবাদটি 195 বার পড়া হয়েছে.
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

আমাদের মোবাইল এপ্পসটি ডাউনলোড করুন